জামালপুরে শেখ হাসিনার নকশী পল্লী

জামালপুরে শেখ হাসিনার নকশী পল্লী

শামীম আলম, জামালপুর : নকশীপণ্যের জেলা জামালপুরে হচ্ছে অত্যাধুনিক শেখ হাসিনা নকশী পল্লী। নদীভাঙন কবলিত জামালপুর  জেলার গ্রামীণ অর্থনীতিতে নকশী সূচি পণ্য বড় ভূমিকা রাখছে। জামালপুরের নকশী শিল্পের উদ্যোক্তা ও কর্মীদের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল এখানে উন্নত সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত নকশী পল্লী স্থাপনের। দাবিটি বিবেচনায় নিয়ে এ জেলায় স্থাপিত হতে  যাচ্ছে দেশের প্রথম শেখ হাসিনা  নকশী পল্লী।

নকশী পল্লীটি নির্মাণ হলে এখানে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে অসংখ্য নারী-পুরুষের। পাল্টে যাবে এ এলাকার গ্রামীণ অর্থনীতির চিত্রও। জানা যায়, বাড়ির উঠানে দলবেধে বর্ণিল নকশায় কাঁথা কিংবা শাড়ি, সেলোয়ার কামিজ সেলাই করছে নারীরা। জামালপুরের গ্রামগুলোতে এটি একটি পরিচিত দৃশ্য। 

জামালপুরের তৈরি নকশী কাঁথা, শাড়ী, সালোয়ার কামিজ, পাঞ্জাবিসহ নানা নকশী পণ্যের সুনাম ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশেও। এখানকার সুঁই-সুতোয় তৈরি বিভিন্ন নকশী পণ্যের উৎপাদন ও বিপণনের সাথে জড়িত ৫ লক্ষাধিক মানুষ। যাদের বেশিরভাগই নারী।  কর্মীদের মানসম্মত প্রশিক্ষণ ও উৎপাদিত পণ্য বিপণনে  নকশী পল্লী স্থাপনের দাবি ছিল দীর্ঘদিনের। দাবিটি পূরণ হতে যাচ্ছে জেনে খুশি এই  শিল্পের সাথে জড়িতরা। 

জেলা প্রশাসক, এনামুল হক বলেন , শেখ হাসিনা নকশী পল্লীতে কর্মীদের জন্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পাশাপাশি থাকবে বিদেশি ক্রেতাদের আবাসনের ব্যবস্থাও। তাই এটি নির্মাণ হলে এখানকার কর্মীদের কাজের মান বৃদ্ধির পাশাপশি ছোট-বড় উদ্যোক্তাদের ব্যবসার পরিধি বাড়বে এমনটাই আশা করছেন প্রশাসনের কর্মকর্তারা। জামালপুর শেখ হাসিনা  নকশী পল্লীর ভূমি অধিগ্রহণ ও মাটি ভরাটের জন্য সম্প্রতি একনেক সভায় ৭২২ কোটি টাকার একটি প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে জেলার অর্থনৈতিক উন্নয়নে নকশী পল্লী গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে এমনটাই বিশ্বাস এ অঞ্চলের মানুষের।