টিকার দ্বিতীয় ডোজের সঙ্গে প্রথম ডোজও চলবে

টিকার দ্বিতীয় ডোজের সঙ্গে প্রথম ডোজও চলবে

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ দেওয়ার কার্যক্রম গতকাল মঙ্গলবার থেকে বন্ধের যে পরিকল্পনা করা হয়েছিল, তা থেকে সরে এসেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ফলে দুই মাস ধরে যেভাবে প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া চলছিল, তা অব্যাহত থাকবে। একই সঙ্গে আগামী ৮ এপ্রিল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হবে দ্বিতীয় ডোজের টিকা দেওয়া।

এ জন্য গতকাল মঙ্গলবার থেকে পর্যায়ক্রমে এসএমএস পাঠানো হচ্ছে প্রথম ডোজ নেওয়া সবার কাছে। প্রথম ডোজ নেওয়া কেউ এসএমএস না পেলেও তিনি যে তারিখে প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন, সেই তারিখের দুই মাস পর টিকা কার্ড নিয়ে আগের কেন্দ্রে গিয়ে দ্বিতীয় ডোজ নিতে পারবেন।

জানা গেছে, গত ৭ ফেব্রুয়ারি যারা টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন, তাদের ডাকা হবে প্রথম দিন অর্থাৎ ৮ এপ্রিল, ওই দিন দ্বিতীয় ডোজ পাবেন ৩১ হাজার ১৬০ জন। যদিও গত ২৭ ও ২৮ জানুয়ারি উদ্বোধনী কার্যক্রমের আওতায় যাদের প্রথম ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছিল, তাদের মধ্যে কয়েকজন গত চার-পাঁচ দিনে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ অন্যান্য কেন্দ্রে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন।

এদিকে গত রোববার এক সভায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা) ও টিকা ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা গতকাল সোমবার ছয়টি নির্দেশনা জারি করেছেন। এতে বলা হয়, ৮ এপ্রিল থেকে টিকার দ্বিতীয় ডোজ চালু হবে এবং একই সঙ্গে প্রথম ডোজ চলতে থাকবে। যাঁরা যে কেন্দ্রে প্রথম ডোজ নিয়েছেন, সেই কেন্দ্রেই দ্বিতীয় ডোজ নেবেন।

গতকাল মঙ্গলবার থেকেই বেক্সিমকো ফার্মা সরকারের সঙ্গে চুক্তি অনুসারে সব জেলায় টিকা পৌঁছে দেওয়া শুরু করেছে। আগে যাওয়া টিকার সঙ্গে তা সমন্বয় করে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ ওই টিকা বুঝে রাখবে। এ ছাড়া রমজান মাসেও যথারীতি টিকাদান কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

ওই নির্দেশনায় বলা হয়, নিষেধাজ্ঞাচলা অবস্থায়ও টিকার কার্যক্রম চলবে। টিকাদান কেন্দ্রে যাওয়ার সময় তাঁরা টিকা কার্ড সঙ্গে নিয়ে রিকশা বা ব্যক্তিগত পরিবহন ব্যবহার করতে পারবেন।

এ ছাড়া সভায় টিকা গ্রহণে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে মসজিদের মাইক, কেবল টেলিভিশন চ্যানেলসহ অন্যান্য মাধ্যমে প্রচার-প্রচারণার ব্যবস্থা করতে হবে বলেও সিদ্ধান্ত হয়।

বিআলো/শিলি