টঙ্গীতে ছাত্রলীগ নেতার মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন

টঙ্গীতে ছাত্রলীগ নেতার মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন

 

মো: আল আমিন হোসেন, টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি : টঙ্গীর মিলগেট
এলাকায় সন্ত্রাসী-ভূমিদস্যু, সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ বদিউজ্জামান বদি বাহিনীর
বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছে গাজীপুর মহানগর ৫৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের
সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম সানিসহ এলাকার ভুক্তভোগী পরিবার। গতকাল মঙ্গলবার
বিকেলে টঙ্গী প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে ইব্রাহিম সানি লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ১৭ নভেম্বর ২০২০ইং
তারিখে আমার ঘর থেকে আমাকে তুলে নিয়ে যায় এবং পারভেজ পাটোয়ারী ও
স্থানীয় এক তুলা মার্কেটের ঝুটের গোডাউন থেকে ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম
সিরুকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। তাদেরকে নিয়ে গিয়ে লাঠিশোটা দ্বারা বেধরক
মারধর করিয়া বাচ্চু মিয়ার ঘরে আটক করিয়া রাখে এবং এলাকায় অস্ত্রসস্ত্র নিয়া
মহড়া দেয়। পরে ৯৯৯ ফোন করলে টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে
স্থানীয় কাউন্সিলরের সহযোগিতায় আমাদেরকে উদ্ধার করে টঙ্গীর শহীদ আহসান
উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের পরিবারের পক্ষ থেকে টঙ্গী পশ্চিম থানায় পৃথক
দুটি মামলা দায়ের করার ৬দিন অতিবাহিত হলেও আসামীরা গ্রেফতার না হওয়ায়
আমরা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি। উক্ত মামলায় আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও
পুলিশ বলছে আসামীদের খোঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। বদি বাহিনীর লোকজন
আমাকেসহ ভুক্তভোগীদেরকে নানান প্রকার হুমকি দামকি প্রদান করিয়া
আসিতেছে এমতাবস্থায় বদি বাহিনীর ভয়ে আতঙ্কে রয়েছে এলাকাবাসী। এই
ঘটনায় থমথমে বিরাজ করছে যে কোন সময় বদি বাহিনীর সন্ত্রাসী দ্বারা বড়
ধরনের ক্ষতির আশঙ্কা করছি।

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীরা জানান, বদিউজ্জামান বদি স্থানীয় মিলগেইট চুরি
ফ্যাক্টরী জনৈক আনোয়ার হোসেনের নামে বরাদ্দকৃত শিল্প প্লটে দারোয়ান
হিসেবে চাকুরীর সুবাদে ওই জায়গাটি তার দখলে নিয়ে ঝুটের গোডাউনসহ
নানাবিদ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। প্লটের মালিককে
বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি হুমকি ধামকি প্রদান করে জায়গার কাছে আসতে দেয়
না।

বদির বাহিনির প্রধান শক্তি বদির স্ত্রীর দুই ভাই শাহা আলী ও শাহেন শাহসহ
বদির বড় ছেলে বিপ্লব, জাহাঙ্গীর, গোলাপ, রানা, মিজান, সুমন, মতিনসহ
৪০/৫০জনের একটি কেডার বাহিনী। শাহেন শাহ ও শাহা আলীর বিরুদ্ধে হত্যা
মাদক, ছিনতাই, চাঁদাবাজীসহ একাধিক মামলা রয়েছে। নিশাত মহল্লা
কবরস্থানের সামনে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ রাজউকের মসজিদের নির্ধারিত
জায়গায় দখল করে দোকান ও বাসা বাড়ি নির্মাণ করছে। সংবাদ সম্মেলনে
উপস্থিত ছিলেন, ৫৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম সানি,
পারভেজ পাটোয়ারী, ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম সিরু, সানির বোন সনিয়া
আক্তার রোকসানা, শিলা আক্তার, সানির মা রেখা বেগম, রহিমা বেগমসহ ভুক্তভোগী
এলাকাবাসী।

অপরদিকে অবৈধ ভূমিদস্যু, সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ বদিউজ্জামান বদির সন্ত্রাসী
বাহিনী ও জীবননাশের হুমকির প্রতিবাদে এলকাবাসী ঢাকা-ময়মনসিংহ
মহাসড়কের টঙ্গী প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছে।

বিআলো/শিলি