তথ্যপ্রযুক্তি উদ্যোক্তা লুনা শামসুদ্দোহা না ফেরার দেশে

তথ্যপ্রযুক্তি উদ্যোক্তা লুনা শামসুদ্দোহা না ফেরার দেশে
ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিনিধি : না ফেরার দেশে চলে গেলেন জনতা ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান দোহাটেক নিউ মিডিয়ার চেয়ারম্যান লুনা শামসুদ্দোহা আর নেই।

বুধবার সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর।বৃহস্পতিবার সকালে তার লাশ ঢাকায় পৌঁছানোর কথা রয়েছে। পারিবারিক সূত্র তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন কোনো ব্যাংকের প্রথম নারী চেয়ারম্যান ছিলেন লুনা শামসুদ্দোহা। ২০১৮ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি তিনি জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পান। এর আগে ২০১৬ সালের জুনে জনতা ব্যাংকের পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন। তার আগে ২০০৯ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক অগ্রণী ব্যাংকের পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন লুনা শামসুদ্দোহা। 

লুনা সফটওয়্যার ফার্ম দোহাটেক নিউ মিডিয়ার চেয়ারম্যান হিসেবে অধিক পরিচিত ছিলেন। তার প্রতিষ্ঠান সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ই-গভর্নেন্স প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত। এর মধ্যে ই-জিপি সিস্টেম অন্যতম। ২০০৭-২০০৮ সালে তিনি জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরিতেও গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। তিনি বাংলাদেশ উইমেন ইন টেকনোলজির (বিডব্লিউআইটি) ‘প্রযুক্তিতে বাংলাদেশি নারী’র প্রতিষ্ঠাতা ও প্রেসিডেন্ট ছিলেন। ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ ও এসএমই ফাউন্ডেশনের পরিচালক হিসেবেও তিনি দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

২০১৩ সালে প্রযুক্তি খাতে নারীদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়া ও নারীর ক্ষমতায়নে গ্লোবাল উইমেন ইনভেন্টরস অ্যান্ড ইনোভেটরস নেটওয়ার্ক সম্মাননা লাভ করেন লুনা। দেশের অর্থনীতিতে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি পেয়েছেন বাংলাদেশ বিজনেস অ্যাওয়ার্ড-২০১৭। এ ছাড়া একজন নারী উদ্যোক্তা হিসেবে স্থানীয় সফটওয়্যার শিল্পে নিজের কাজের স্বীকৃতি হিসেবে লুনা শামসুদ্দোহা অনন্যা টপ টেন অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন। 

এদিকে তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। এক শোকবার্তায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, লুনা শামসুদ্দোহা দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়ন ও বিকাশে জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত কাজ করে গেছেন।

বি আলো / মুন্নী