দেশে শুরু হচ্ছে বিশ্বখ্যাত কমপ্লুটেন্স ইউনিভার্সিটির শিক্ষা কার্যক্রম

দেশে শুরু হচ্ছে বিশ্বখ্যাত কমপ্লুটেন্স ইউনিভার্সিটির শিক্ষা কার্যক্রম

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার শিক্ষার্থীদের ভাষা শিক্ষাসহ ডিপ্লোমা, স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি পর্যায়ে নানা বিষয়ে বিশ্বখ্যাত শিক্ষালাভের সুযোগ সৃষ্টি করেছে স্পেনের কমপ্লুটেন্স ইউনিভার্সিটি অফ মাদ্রিদ। 

বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতে স্থানীয়ভাবে বিশ্বখ্যাত এই শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করতে আগ্রহী শিক্ষা সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে যোগাযোগের আহ্বান জানান হয়েছে। এ ক্ষেত্রে আগ্রহী প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিশ্ববিদ্যালয়ের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বিপণন পরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বিপণন পরিচালকের একটি পোস্টে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বিপণন পরিচালক ও দেশের শিক্ষা সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান এসএসবিসিএলের প্রধান নির্বাহী সুমন তালুকদার এ বিষয়ে বলেন, পুরো বিশ্ব এখন একটি পরিবার। উন্নত ও মানসম্পন্ন শিক্ষা যাতে দেশেই পাওয়া যায় সে লক্ষ্যেই এই শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার শিক্ষার্থীদের জন্য এটি একটি বিরাট সুযোগ হতে যাচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

ফিলিওলজি অনুষদের তত্ত্বাবধানে ১৯২৮ সাল থেকে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক বিভাগ এ ধরনের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। একদল দক্ষ ও অভিজ্ঞ কর্মকর্তা এবং বিশেষজ্ঞ শিক্ষকদের সমন্বয়ে প্রায় শতবর্ষব্যাপী এই শিক্ষা সেবা দিয়ে যাচ্ছে বিশ্বখ্যাত এই বিশ্ববিদ্যালয়টি।  

স্পেনের ভাষা, সংস্কৃতি ও ইতিহাস বিষয়ে শিক্ষার্থীদের জ্ঞানসৃষ্টিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কমপ্লুটেন্স সেন্টার নিয়মিত ইতিহাস-ঐতিহ্য সমৃদ্ধ বিভিন্ন স্থান ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের আয়োজন করে থাকে। 

বিভিন্ন বিষয়ের ওপর ইতিমধ্যে ৭ বার নোবেল প্রাইজ অর্জন করে এই বিশ্ববিদ্যালয় অর্জন করেছে অনন্য কৃতিত্ব। স্পেনের রাজা প্রথম জুয়ান কার্লোস, রানী লেটিজিয়াসহ দেশ-বিদেশের শিক্ষা ব্যক্তিত্ব ও রাজনীতিকরা এই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন। যা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসকে সমৃদ্ধ করেছে।

স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাস অবস্থিত। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে ২৫টি বিভাগ, কলেজ পর্যায়ে ৩৫টি গবেষণা ইনস্টিটিউট, ৯টি কারিগরি কলেজ, ৪টি বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল এবং ৩২টি গ্রন্থাগার।
একাধিক গ্রন্থাগার ও বিজ্ঞানাগারসমৃদ্ধ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ শিক্ষার্থীদের জ্ঞান অর্জনে যেমন উপযোগী তেমনি তাদের জীবনমান উন্নয়নেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

মাদ্রিদের উপকণ্ঠে মনক্লোয়া এবং সামাজিক বিজ্ঞান অনুষ্দ হিসেবে পরিচিত সমোসাগুয়াস ক্যাম্পাস দুটি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি গুরুত্বপূর্ণ ক্যাম্পাস। এছাড়া এই বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে একাধিক বিদেশি গবেষণা ইনস্টিিিটউট। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- রিয়েল কলেগিয়ো কমপ্লুটেন্স অফ হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি। মিগুয়েল সারভেট সিনিয়র স্কুল অফ ইউরোপিয়ান স্টাডিস, ডুবেক চেয়ার অ্যাট কমেনিয়াস ইউনিভার্সিটি অফ স্লোভাকিয়া এবং প্রফেসরশিপ ফর কারলোভা কমপ্লুটেন্স ইউনিভার্সিটি অফ চেক রিপাবলিক।

বিআলো/ইসরাত