পুলিশের জন্য সাত ব্যাংকের পিপিই ও মাস্ক

পুলিশের জন্য সাত ব্যাংকের পিপিই ও মাস্ক
ছবি সংগৃহীত

সুমন সরদার: বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ার প্রথম দিন থেকেই নিজেদের জীবনের ঝুঁঁ‌কি নি‌য়ে জনগণের পাশে রয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের বীর সদস্যরা‌। করোনা সংক্রমণ রোধে জনসচেতনতা সৃষ্টি, আক্রান্ত ও কোয়ারেন্টাইনে থাকা মানুষের পাশে দাঁড়ানো, দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ, লকডাউন কার্যকর করা, আক্রান্ত ব্যক্তিকে হাসপাতালে নেওয়া, করোনা আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা গেলে যখন ওই ব্যক্তির আপনজনরাও আসেন না, তখন ওই মৃত ব্যক্তির সৎকারের মত মানবিক  কাজও নিরলসভাবে করে যাচ্ছেন পুলিশ সদস্যরা। করোনাকালে পুলিশের এ জনহিতৈষী ও মানবিক কার্যক্রম ইতোমধ্যে দেশের মানুষের কাছে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছে। 

চলমান এ পরিস্থিতিতে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন পুলিশ সদস্যরা। দায়িত্ব পালনকালে পুলিশ সদস্যদের করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি রোধে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স হতে প্রয়োজনীয় সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান করা হচ্ছে। করোনা সুরক্ষা সামগ্রী প্রদানে পুলিশের সারথি হয়ে এগিয়ে এসেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় সাতটি ব্যাংক।

এ সাত ব্যাংকের পক্ষ থেকে আজ মঙ্গলবার পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ, বিপিএম (বার) এর কাছে আন্তর্জাতিকমানের ১ লাখ পিপিই এবং ১ লাখ মাস্ক হস্তান্তর করা হয়েছে।

আইজিপি ব্যাংকগুলোর এ মহতী উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং এ ধরনের মানবিক কাজে বাংলাদেশ পুলিশের পাশে থাকায় তাদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

ব্যাংকগুলোর মধ্যে রয়েছে আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড, ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড, ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক লিমিটেড, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড। 

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক মানের এ পিপিই এবং মাস্ক তৈরি করেছে বেক্সিমকো গ্রুপের নতুন প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো পিপিই ডিভিশন।