বাঘারপাড়ায় ড্রাইভার রিপন হত্যায় আটক ২, টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ

বাঘারপাড়ায় ড্রাইভার রিপন হত্যায় আটক ২, টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ

সুমন পারভেজ, বাঘারপাড়া (যশোর): বাঘারপাড়া উপজেলার মহিরন গ্রামের মনিরুল ইসলামের ছেলে  হাসপাতাল মোড় সংলগ্ন প্রাইভেট স্টান্ডের ড্রাইভার রিপন হোসেন (২৬)কে প্রকাশ্য দিবালকে কুপিয়ে হত্যা।

রবিবার দুপুরে যশোর মোল্যাপাড়ার হাফিজুর রহমানের ছেলে বরকত হোসেন (২৮) এর সাথে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে বাঘারপাড়া হাসপাতাল গেটের সামনে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে  বরকতের স্ত্রী পিংকী (১৯) রিপন হোসেনকে লাথি মেরে ফেলে দেয়। 

এর পর পরই খুনি বরকত তার কাছে থাকা সেভেন গিয়ার ছুরি দিয়ে রিপনের বুকের বাম পাশে আঘাত করে ও তোরাব আলীর ছেলে হিরু আহম্মেদ (৩২) ঠেকাতে গেলে তাকেও  জখম করে।

স্থানীয়রা আহতদের দ্রুত বাঘারপাড়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে রিপনের  অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়, সেখানে নেয়ার পথে রিপন গাড়ির মধ্যে মারা যায়। তার মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া মাত্রই স্থানীয় লোকজন ও স্বজনেরা বাঘারপাড়া হাসপাতালের সামনে টায়ার জ্বেলে বিক্ষভে ফেটে পড়ে।

স্থানীয়রা খুনিকে পুলিশে হাতে দিলে পুলিশ তাদেরকে থানায় নিয়ে যায়। আসামিদের কাছ থেকে তিনটি মোবাইল ও একটি সেভেন গিয়ার ছুরি উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ ।

এবিষয়ে বাঘারপাড়া থানার ওসি সৈয়দ আল-মামুন জানান আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

এ হত্যা কান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাঘারপাড়া পৌর মেয়র কামরুজ্জামান বাচ্চু। তিনি বলেন, প্রকৃত আসামিদের দ্রুত বিচারের আওতায় এনে দ্রুত শাস্তির ব্যবস্থা করার জন্য আইনের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্ত ক্ষেপ কামনা করছি।

পাশাপাশি ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির বাঘারপাড়া উপজেলা সাধারণ সম্পাদক রাকিব হাসান শাওন নিহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানান। এ রিপোর্ট লেখো পর্যন্ত বাঘারপাড়া থানায় মামলার প্রস্তুতি,
আসামিদের জিজ্ঞাসা চলছিলো। এঘটানায় বাঘারপাড়া চৌরাস্তা মোড়ের মেইন সড়ক গুলোতে বিক্ষোভ মিছিল শেষে চৌরাস্তা মোড়ে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এতে বক্তব্য রাখেন আফজাল হোসেন সঞ্জিব, এনায়েত হোসেন লিটন,শোয়াইব আহম্মেদ, রাসেল তান্না,বক্তরা রিপোন হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান,এবং হত্যা কারিদের ফাঁসির দাবী জানান।

বিআলো/ইসরাত