বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রেমিকের মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মনীষা হীরা আত্মহত্যা করেছেন। শনিবার রাতে শহরের সবুজবাগের বাসায় সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেন।

মনীষা হীরা শহরের চাঁদমারী রোডের সবুজবাগ এলাকায় একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতেন। তার বাবার নাম তুষার হীরা।বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, প্রায় এক মাস আগে তার প্রেমিক আত্মহত্যা করেন। এরপর থেকে মনীষা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন। অনেকের ধারণা, প্রেমিকের মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।আত্মহত্যার বিষয়ে তার সহপাঠী ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী বিজন বলেন, আত্মহত্যার কারণ কেউ জানেন না। তবে এক দেড় মাস আগে তার বয়ফ্রেন্ড আত্মহত্যা করে। এতে সে ডিপ্রেশনে ছিল। সম্প্রতি তার বিয়ে ঠিক হয় এবং আশীর্বাদও হয়েছিল।

ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষক রাকিবুল ইসলাম বলেন, আমরা ঘটনা শুনেই সকাল ১০টার দিকে মনীষার বাড়িতে যাই। তার বাবার কাছ থেকে জানতে পারি সকালে তিনি ওয়াশরুমে যাওয়ার সময় দেখেন মনীষা ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনায় আমি ও ম্যানেজমেন্ট পরিবার গভীরভাবে শোকাহত।

বি আলো / মুন্নী