বাংলাদেশ দলকে বাধ্যতামূলক ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইন থাকতে হবে : এসএলসি চেয়ারম্যান

বাংলাদেশ দলকে বাধ্যতামূলক ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইন থাকতে হবে : এসএলসি চেয়ারম্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক : শ্রীলংকা ক্রিকেট (এসএলসি) কোভিড-১৯ এর কারণে কোয়ারেন্টাইন কালের বিষয়ে তাদের অবস্থানে অবিচল থাকছে।
এসএলসি চেয়ারম্যান স্পস্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন- মাঠে অনুশীলন শুরুর আগে বাংলাদেশ দলকে বাধ্যতামুলক ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।


শ্রীলংকা সফরে প্রস্তাবিত তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে পুরোপুরি প্রস্তুতির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ দলের মূল সমস্যাই হচ্ছে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন কাল।


গত মার্চে করোনা শুরু হওয়ার পর থেকেই ক্রিকেটের বাইরে রয়েছেন বাংলাদেশী ক্রিকটোররা। এমনকি ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু করলেও এখন পর্যন্ত তারা গ্রুপ বা দলীয় অনুশীলন শুরু করতে পারেনি।
তবে বাংলাদেশ দলকে সাত দিন কোয়ারেন্টাইন থাকতে হবে এবং এ সময়ে তারা অনুশীলনও করতে পারবে বলে আগে এসএলসির পক্ষ থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) নিশ্চিত করা হয়েছিল।


দুই দেশের মধ্যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট শুরুর আগে সাত দিনের কোয়ারেন্টাইন সংক্রান্ত বিসিবির দাবীকে অস্বীকার করেছেন এসএলসি চেয়ারম্যান শাম্মি ডি সিলভা।
কোয়ারেন্টাইন কাল নিয়ে দুই বোর্ডের দুই রকমের দাবী নিয়ে কথা উঠলে স্থানীয় সিলোন টুডে পত্রিকাকে এ কথা বলেন সিলভা।


সিলভার উদ্ধৃতি দিয়ে শ্রীলংকার আইল্যান্ড পত্রিকা জানায়, ‘তারা যদি এটা (সাত দিন কোয়ারেন্টাইন) বলে থাকে তবে সেটা ঠিক নয়। প্রকৃত অর্থেই আমি ভুঝতে পারছি না -কেন তারা এক সপ্তাহের কথা বলছে। সাত দিনের কোয়ারেন্টাইনের বিষয়ে বিসিবির সাথে আমাদের কোন কথা হয়নি। তবে যাই হোক আমরা স্বাস্থ্য বিভাগের কথার বাইরে কোয়ারেন্টাইন কাল কমাতে পারব না। এটা নিশ্চিত যে বাংলাদেশ দলকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।’


নিজের বক্তব্য পুনরুল্লেখ করে সিলভা বলেন, ‘এমনকি শ্রীলংকা পৌঁছার আগেও যদি তারা কোয়ারেন্টাইন করে তথাপি কলম্বো পৌঁছে তাদেরকে বাধ্যতামূলকভাবে হোটেলে থাকতে হবে। সমস্ত খরচ এসএলসি বহন করবে।’


বি আলো /মুন্নী