মিয়ানমার থেকে টেকনাফে এল ১৯৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ 

মিয়ানমার থেকে টেকনাফে এল ১৯৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ 

হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ প্রতিনিধি: দেশে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ার পর পাঁচ দফায়  মিয়ানমার থেকে একদিনে ১৯৫ দশমিক ২১৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ টেকনাফ স্থলবন্দরে এসেছে। 

আজ রোববার সকালে তিনটি ট্রলারে পেয়াঁজগুলো টেকনাফ স্থলবন্দরের ঘাটে এসে পৌঁছায়। এর আগে সর্বশেষ চলতি মাসের ৭অক্টোবর বুধবার এ বন্দর দিয়ে পেঁয়াজের ট্রলার এসেছিল। গত সেপ্টেম্বর ও চলতি মাসে মিয়ানমার থেকে নৌপথে পাঁচ   দফায় ৩২৭দশমিক ৬১মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে। 

এ তথ্যটি  নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ স্থলবন্দরের শুল্ক কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন।

তিনি বলেন,রোববার একদিনে দুইজন ব্যবসায়ী মিয়ানমার থেকে আমদানি করেছেন। এরমধ্যে ব্যবসায়ী আব্দুল জব্বারে ১১২দশমিক২১৫মেট্রিক টন ও মোহাম্মদ ফারুকের ৮৩মেট্রিক টন পেঁয়াজ। আমদানি করা এসব পেয়াঁজ ট্রলার থেকে খালাস করে সন্ধ্যায় ট্রাকে করে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হচ্ছে। 

টেকনাফ শুল্ক বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, মিয়ানমার থেকে এ বন্দর দিয়ে গত বছরের আগস্ট মাসে ৮৪ মেট্রিক টন, সেপ্টেম্বর মাসে তিন হাজার ৫৭৩ মেট্রিক টন, অক্টোবর মাসে ২০হাজার ৮৪৩ মেট্রিক টন, নভেম্বর মাসে ২১হাজার ৫৬০মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছিল।চলতি বছরের জুলাই মাসে এসেছিল ৮৩মেট্রিক টন পেঁয়াজ। সেপ্টেম্বর মাসে ৫৭দশমিক ২০০মেট্রিকটন পেঁয়াজ এসেছিল। সর্বশেষ ৭অক্টোবর বুধবার ১৯দশমিক ১২৫মেট্রিকটন পেঁয়াজ এসেছিল।          

আমদানিকারক মোহাম্মদ ফারুক  বলেন,মিয়ানমার থেকে রোববার সকালে  ৮৩মেট্রিকটন পেয়াঁজ আমদানি করেছি। আরও পেঁয়াজ ভর্তি ট্রলার আসার পথে রয়েছে। তবে কিছু পেঁয়াজ নষ্ট হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে স্থলবন্দর পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠানের ইউনাইটেড ল্যান্ড পোর্ট টেকনাফ লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক জসিম উদ্দিন চৌধুরী বলেন,মিয়ানমার থেকে পাঁচ দফায় রোববার সকালে তিনটি ট্রলারে ১৯৫দশমিক ২১৫মেট্রিকটন পেঁয়াজ এসেছে।আমদানি করা পেঁয়াজ দ্রুত সময়ে খালাস করে সন্ধ্যা পর্যন্ত ১৫টি ট্রাকের দেশের বিভিন্ন বিভাগীয় শহরের উদ্দেশ্যে স্থলবন্দর ছেড়ে গেছে।

বিআলো/শিলি