মিয়ানমার সীমান্তে 'স্থলমাইন' বিস্ফোরণে রোহিঙ্গা যুবকের মৃত্যু

মিয়ানমার সীমান্তে 'স্থলমাইন' বিস্ফোরণে রোহিঙ্গা যুবকের মৃত্যু

লুৎফুর রহমান উজ্জ্বল, বান্দরবান : বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তে স্থলমাইন বিস্ফোরণে এক রোহিঙ্গার মৃত্যু হয়েছে। এসময় আরও ২ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। নিহত রোহিঙ্গার নাম বদি আলম। শুক্রবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয়রা জানায়, জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের মিয়ানমার সীমান্তের ৩৯ নম্বর সীমানা পিলার এলাকায় মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর পুঁতে রাখা স্থলমাইন বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটে। এসময় বিস্ফোরণে ১ জন রোহিঙ্গার মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন আরও দুজন। নিহত রোহিঙ্গা বদি আলম কক্সবাজারের উখিয়া ১নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দার। আহতরা হলেন মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ এবং মোহাম্মদ জুয়েল। এরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। খবর পেয়ে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উখিয়া কুতুপালং শরণার্থী শিবির ক্যাম্পের হাসপাতালে ভর্তি করেছে। নিহত রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার করেছে বিজিবি-পুলিশ। স্থানীয়দের দাবি হতাহত রোহিঙ্গারা মাদকদ্রব্য’সহ চোরাচালানে সঙ্গে জড়িত ছিলো। চোরাচালান করতে গিয়ে বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনাটি ঘটেছে। রোহিঙ্গাদের আনাগোনা ঠেকাতে সীমান্তের বিভিন্ন পয়েন্টে কাঁটা তারের বেড়ার ঘেষে স্থলমাইন পুতেছে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষীরা। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিজিবি ৩৪ ব্যাটালিয়ন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলী হায়দার জানান, সীমান্তের ৩৯/ ৪০ নাম্বার সীমান্ত পিলারের মাঝামাঝি এলাকায় স্থলমাইন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তবে ঘটনাস্থল মিয়ানমার অংশে পড়েছে। ঘটনার পর সীমান্তে বিজিবি নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, তিন মাসে সীমান্তের বিভিন্ন অংশে স্থলমাইন বিস্ফোরণে ৬ জন নিহতের ঘটনা ঘটেছে।