শারীরিক ও মানসিক অক্ষমতায় করণীয়

শারীরিক ও মানসিক অক্ষমতায় করণীয়

আলহাজ্ব ডা.এম.এন.ইসলাম: নারী-পুরুষের বিভিন্ন সমস্যার মধ্যে বর্তমানে যৌনরোগ একটি মারাত্মক সমস্যা। শারীরিক  মানসিক-উভয় ক্ষেত্রেই এটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। এ রোগের ক্ষেত্রে উভয়ের আলাদা কিছু লক্ষণ প্রকাশ পায়। যেমন-পুরুষের হৃৎকম্পন বা শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা, ক্লান্তি, বুক ব্যথা, শারীরিক দুর্বলতা, অবসাদ, কাজে অনিহা, শিক্ষার্থীর লেখাপড়ায় অমনোযোগ, অনিদ্রা ও জীবন সঙ্গী পছন্দ না হওয়া ইত্যাদি। নারীর স্নায়ুবিক দুর্বলতা,অবসাদ, পিঠে ব্যাথা, ব্যথাযুক্ত মাসিক ও 
অনিয়ম, শরীরের তাপমাত্রা হ্রাস-বূদ্বি খিটখিটে মেজাজ ও ঝগড়া করার মানসিকতা, সহবাসের সময় যৌনাঙ্গে শুষ্কভাব ইত্যাদি। 

অক্ষমতা : পুরুষের জন্য এটি বড় ধরনের সমস্যা। নারীর জন্য ও সমস্য। জননেন্দ্রিয়ের রোগ, স্নায়ুবিক দুর্বলতা ইত্যাদি কারণে এমন হয়। এছাড়া বহুগামিতার ফলে হতে পারে সিফিলিস ও গনোরিয়া রোগ।

ওষুধজনিত কারণ: মরফিন, মদ, আফিম, অ্যালকোহল, উচ্চ রক্তচাপের ওষুধ, সাময়িক যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট ও তামাক জাতীয় দ্রব্য সেবনে অক্ষমতা আসতে পারে। 

শুক্রক্ষরণ : এটা স্নায়ু দুর্বলতার কারণে হতে থাকে। কৃমি, পাইলস,কোন্ঠকাঠিনসহ বিভিন্ন কারন এ জন্য দায়ী। 

ব্যবস্থাপনা : হোমিওপ্যাথি ওষুধ এ রোগ নিরাময়ে বিশেষভাবে কার্যকর 
হয়। আক্রান্ত ব্যাক্তিরা এ জন্য অভিজ্ঞ হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে সর্বদা প্রফুল্ল মন নিয়ে এগিয়ে যাওয়া উচিত ।

পরামর্শ : যেহেতু হোমিওপ্যাথি একটি লক্ষণ ভিত্তিক চিকিৎসা পদ্ধতি। সঠিকভাবে রোগীলিপি প্রস্তুত করে রেপার্টরী ও ড্রাগ ফিলটার করে সুনির্দিষ্ট মাত্রা ও সঠিক পরিমাণ ওষুধ প্রয়োগের মাধ্যমে নারী-পুরুষের শারীরিক অক্ষমতা নিরাসন নিয়ন্ত্রণ ও নিরাময় অবস্যই সম্ভব । 

চেম্বার : এইচ-২৩,৩য় তলা, আমতলী, মহাখালী, এয়ারর্পোট রোড, ঢাকা  
০১৯৭০ ৫৫৫ ৯১৯, ০১৭৫২ ১১৭ ১৬১