২০ হাজার ২৫০ হেক্টর লক্ষ্যমাত্রা চিরিরবন্দরে ইরিবোরো চাষ শুরু

২০ হাজার ২৫০ হেক্টর লক্ষ্যমাত্রা চিরিরবন্দরে ইরিবোরো চাষ শুরু

জামাল উদ্দিন, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: ধান-লিচুতে ভরপুর জেলার নাম দিনাজপুর। খাদ্য শষ্যের ভান্ডার হিসাবে খ্যাত দিনাজপুরের ১৩ উপজেলার মধ্যে চিরিরবন্দর অন্যতম। নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও চলতি মৌসুমে ইরিবোরো চারা লাগানোর জন্য ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে চিরিরবন্দরের ১২টি ইউনিয়নের কৃষকেরা। ইতিমধ্যে উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর ইরিবোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে।

উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এ বছর চিরিরবন্দর উপজেলায় ইরি বোরো চাষের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ হাজার ২৫০ হেক্টর জমি। এর মধ্যে উপসী ১৭ হাজার ১১৫ হেক্টর এবং হাইব্রীড ৩ হাজার ১৩৫ হেক্টর।

মৌসুমের শুরুতেই ঘনকুয়াশা ও প্রচন্ড ঠান্ডার মধ্যে গভীর-অগভীর নলকুপ এবং বিভিন্ন উপায়ে উপজেলার কৃষকেরা সেচের ব্যবস্থা করে ইরি বোরো চাষ শুরু করেছে। বিগত সময় প্রাকৃতিক দূর্যোগ ও নানা কারণে কৃষকদের যে ক্ষতি হয়েছে তা পুষিয়ে নিতে এবার কৃষক কোমর বেঁধে নেমেছে।

সরজমিনে চিরিরবন্দর উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ঘুরে দেখাগেছে, এ বছর প্রায় সব জমিতে ইরিবোরো লাগানো জন্য কৃষকেরা জমি চাষ ও সেচের জন্য পানির ব্যবস্থা এমনকি লাগানোর জন্য ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে। বসে থাকার ফসরত নেই তাদের।

উপজেলার উত্তরপলাশ বাড়ী গ্রামের কৃষক আব্দুল হামিদ, হরিশ্চন্দ্র পুর গ্রামের সেতাবদ্দিন, বাসুদেবপুর গ্রামের আফজাল হোসেন, নশরতপুর গ্রামের জুয়েল জানান, নানা প্রতিকূলতা ঘনকুয়াশা ও প্রচন্ড ঠান্ডার মধ্যে সময় মতো চারা রোপন করতে না পারলে আশানুরুপ ফলন পাওয়া যাবে না।

তাই সময়মতো চারা রোপনের কাজ করছি। যদি প্রাকৃতিক কোন দূর্যোগ না হয় তাহলে বাম্পার ফলন হবে বলে আশা করছে কৃষক ও কৃষি বিভাগ। 

বিআলো/শিলি