‘অশনির’ প্রভাবে ৫ বিভাগে ভারি বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা

‘অশনির’ প্রভাবে ৫ বিভাগে ভারি বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা

বিআলো ডেস্ক:ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় অশনি। বুধবার মধ্যরাতে রাজ্যটির উপকূলীয় অঞ্চলে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড়টি। এ সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার। বৃহস্পতিবার (১২ মে) ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ঊড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গে ভারি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে দেশটির আবহাওয়া অধিদফতর।

এদিকে অশনির প্রভাবে বাংলাদেশেও কোথাও কোথাও বৃষ্টি হচ্ছে। জোয়ারের পানির তোড়ে বাগেরহাটে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্মাণাধীন বেড়িবাঁধে ফাটল দেখা দিয়েছে। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন বাসিন্দারা।

বৃহস্পতিবার সকালে আবহাওয়াবিদ মো. হাফিজুর রহমান আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, অশনির প্রভাবে বুধবার (১১ মে) সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশের ৫ বিভাগে ভারি বৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে। কোথাও কোথাও বৃষ্টি শুরু হয়েছে।

আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে (ক্রমিক নম্বর-১৯) অধিদফতর জানিয়েছে, ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূল ও তৎসংলগ্ন পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি' উত্তর দিকে অগ্রসর ও দুর্বল হয়ে গভীর নিম্নচাপ আকারে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি বুধবার মধ্যরাত চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ৩১৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ২৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ১২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে এক ১৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিলো। এটি আরো উত্তর বা উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর ও দুর্বল হয়ে পরবর্তী সময়ে ১২ ঘণ্টার মধ্যে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৪৮ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার যা দমকা বা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। গভীর নিম্নচাপ কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে এক নম্বর দূরবর্তী সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেইসঙ্গে তাদের গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে।

এদিকে ভারি বর্ষণের সতর্কবাণীতে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র অগ্রবর্তী অংশের প্রভাবে বুধবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তীসময়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরণের ভারি (২৩ থেকে ৪৩ মিলিমিটার) থেকে অতিভারি (৮৯ মিলিমিটার বা এর বেশি) বর্ষণ হতে পারে।

বিআলো/শিলি