ঈদে বাড়ি ফেরার পথে পদ্মার চরে কন্যা সন্তান প্রসব; ডিসি নাম দিয়েছেন পদ্মা

ঈদে বাড়ি ফেরার পথে পদ্মার চরে কন্যা সন্তান প্রসব; ডিসি নাম দিয়েছেন পদ্মা

শরীয়তপুর জেলা প্রতিনিধি: ঈদে বাড়ি ফেরার পথে সাত মাসের এক প্রসূতি সন্তান প্রসব করছেন পদ্মার মাঝির চরে। ৯ মে (রবিবার) বরিশালের হিজলা থানার পূর্ব শ্রীপুর গ্রামের মো. নাহিদ(২৩) ও বরগুনার আমতলী থানার সুরমা বেগম (১৯) মাঝির চরে কন্যা সন্তান জন্ম দেন।

সন্তানের নাম মারিয়ম আক্তার পদ্মা রেখেছেন শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক মো. পারভেজ হাসান এবং তার প্রাথমিক চিকিৎসাসহ পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছেন জাজিরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ আশরাফুজ্জামান ভূঁইয়া।

করোনা মহামারী ঠেকাতে সরকারের কঠোর নির্দেশ ছিল কর্মস্থলে থেকে ঈদ আনন্দ উদযাপন করতে। কিন্তু দক্ষিণ বঙ্গসহ সারাদেশের মানুষ ঈদকে সামনে রেখে বাড়ি ফিরতে মরিয়া। এদের মধ্যে নাহিদ ও সুরমা দম্পতিও ছিল। সরকারের নির্দেশে ফেরি, স্পিডবোট না চলাচল করায় ট্রলার যোগে নদী পাড়ি দেন তারা। পদ্মার মাঝির চরে নেমে গাড়ি পথ না থাকায় টানা দুই ঘন্টা হাটার কারণে প্রসব যন্ত্রণা অনুভব করেন সুরমা।

এসময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় একটি বাড়িতে নরমাল ডেলিভারি হয়। সাংবাদিকদের মাধ্যমে জাজিরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ আশরাফুজ্জান ভূঁইয়া জানতে পেরে উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেলেক্সের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসানকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেন।

প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ শেষে মোহাম্মাদ আশরাফুজ্জামান ভূঁইয়া ফুল দিয়ে দম্পতিকে শুভেচ্ছা জানান, মিস্টি বিতরণ করেন এবং বাচ্চার প্রাথমিক খাবার, পোষাক, ঔষধ উপহার দেন।

এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ আশরাফুজ্জামান ভূঁইয়া বলেন, আমরা বিষয়টি জানতে পেরে সাথে সাথে ওয়াটার এম্বুলেন্স যোগে তাদের হাসপাতালে নিয়ে আসি। বাচ্চাসহ মা সুস্থ হলে তাদেরকে নিরাপদে বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হবে এবং জাজিরা উপজেলা প্রশাসন মারিয়ম আক্তার পদ্মার পড়াশোনার দায়িত্ব গ্রহণ করেছে।

বিআলো/শিলি