ওয়ালটন বিশেষ শিশু-কিশোরদের শীতকালিন ক্রীড়া উৎসব মঙ্গলবার শুরু

ওয়ালটন বিশেষ শিশু-কিশোরদের শীতকালিন ক্রীড়া উৎসব মঙ্গলবার শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক: ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় ও জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির (এনএএসপিডি) ব্যবস্থাপনায় মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ‘ওয়ালটন বিশেষ শিশু-কিশোরদের শীতকালিন ক্রীড়া উৎসব-২০২১।’ ৩৬টি ক্যাটাগোরিতে দুই শতাধিক বিশেষ শিশু-কিশোরদের নিয়ে ধানমন্ডির সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে দুইদিন ব্যাপী এই প্রতিযোগিতা বুধবার সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হবে।

এই প্রতিযোগিতার বিষয়ে বিস্তারিত জানানোর জন্য আজ রোববার (২১ নভেম্বর) বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক (গেমস এন্ড স্পোর্টস, মার্কেটিং) ও জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির সভাপতি এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন), এটিএন বাংলার উপদেষ্টা (চেয়ারম্যান) কর্নেল (অবঃ) মীর মোতাহার হাসান, জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতি ও জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের মহাসচিব এবং বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সমাজকল্যাণ সম্পাদক ড. সেলিনা আক্তার সহ অন্যান্যরা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় এবারের এই শীতকালিন ক্রীড়া উৎসবে ১০টি প্রতিবন্ধী সংস্থা, সংগঠন ও স্কুলের ২ শতাধিক শিশু-কিশোর অংশ নিবে। সাধারণত প্যারা অলিম্পিকে যে সকল ডিসিপ্লিন থাকে সেসব ডিসিপ্লিনে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। সব মিলিয়ে মোট ৩৬টি ক্যাটাগোরিতে দুই শতাধিক শিশু-কিশোর অংশ নিবে।  শেষ দিন হবে আকর্ষণীয় ফুটবল ম্যাচ।

প্রতিযোগিতার চ্যাম্পিয়ন, রানার্স-আপ দলকে ট্রফি দেওয়া হবে। এ ছাড়া প্রতিটি ক্যাটাগোরিতে ভালো করা বিশেষ শিশু-কিশোরদের ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে পুরস্কৃত করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) বলেন, আমরা ওয়ালটন পরিবার গেল প্রায় এক দশক ধরে এনএএসপিডি এর সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে বাংলাদেশের বিশেষ শিশু-কিশোরদের জন্য কাজ করেছি। তারই ধারাবাহিকতায় এবারও তাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছি। ওয়ালটন পরিবার সব সময় এই বিশেষ শ্রেণির শিশু-কিশোরদের নিয়ে কাজ করতে চায়। আমরা বিশ্বাস করি আমাদের প্রতিবন্ধী শিশুরা নানারকম সুযোগ-সুবিধা পেলে তারাও অনেক বড় হতে পারবে। বাংলাদেশে অনেক প্রতিভাবান প্রতিবন্ধী শিশু রয়েছে। আমরা ওয়ালটন পরিবার এ ধরণের সব শিশুদের নিয়েই কাজ করতে চাই।
 
ড. সেলিনা আক্তার বলেন, এ ধরণের পিছিয়ে পড়া অসহায় প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য এগিয়ে আসা খুবই প্রয়োজন। ওয়ালটন গ্রুপ গেল প্রায় এক দশক ধরে অত্যন্ত আন্তরিকতার সঙ্গে এই কাজে এগিয়ে এসেছে। ওয়ালটন গ্রুপের মতো অন্যান্য প্রতিষ্ঠানেরও উচিত প্রতিবন্ধী শিশুদের সাহায্যার্থে এগিয়ে আসা।

তিনি আরও বলেন, আমরা জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতি (এনএএসপিডি) ২০০০ সাল থেকে সব ধরণের প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করছি। বছরে বেশ কয়েকবার তাদের নিয়ে ক্রীড়া উৎসবের আয়োজন করি। জাতীয় পর্যায়ে আয়োজিত ক্রীড়া উৎসবে ২ থেকে ৩ হাজারের মতো বিশেষ শিশু-কিশোর অংশ নেয়। এবার করোনার কারণে সীমিত আকারে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে যাচ্ছি।

এই প্রতিযোগিতার সহযোগিতায় থাকবে ওয়ালটন গ্রুপের জনপ্রিয় ব্র্যান্ড মার্সেল। মিডিয়া পার্টনার এটিএন বাংলা ও এটিএন নিউজ। রেডিও পার্টনার রেডিও টুডে। আর অনলাইন পার্টনার রাইজিংবিডি ডটকম।