মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আলতাপ আলী'র ২৩তম মৃত্যুবার্ষিকী 

মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আলতাপ আলী'র ২৩তম মৃত্যুবার্ষিকী 

জেলা প্রতিনিধি: একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও দক্ষিণ কুমিল্লার আওয়ামী রাজনীতির অন্যতম ব্যক্তিত্ব, বিশিষ্ট সমাজসেবক, দানবীর মরহুম হাজী আলতাফ আলী সাহেবের ২৩তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। ১৯৯৮ সালের ৭ এপ্রিল তিনি ইন্তেকাল করেন ৷

আজগরা ইউনিয়ন তার আশপাশের এলাকার এক বিশ্বস্ত মানুষ ছিলেন তিনি ৷ সবার বিপদে আপদে যে তিনিই সবার আগে এগিয়ে আসতেন ৷ মানুষকে বিভিন্ন ধরনের সহায়তা করতেন ৷ সঠিক বিচারের জন্য তিনি ছিলেন সর্বত্রে প্রশংসিত ৷ তিনি সব শ্রেণি পেশার মানুষের প্রিয় আলতাপ আলী নামে পরিচিত ছিলেন ৷

মানুষ শিক্ষিত না হলে সমাজ, এলাকা আলোকিত ও উন্নত হবেনা এই উপলব্দি থেকেই ১৯৬৭ সালে নিজ অর্থায়নে প্রতিষ্ঠিত করলেন 'আজগরা হাজি আলতাপ আলী হাইস্কুল' (১৯৯৯ সালে এটি কলেজে রুপান্তরিত হয়) ৷ আলোর মশাল তিনি জ্বালিয়ে দিলেন ৷
অজ্ঞতার অন্ধকার দুর হতে লাগলো ৷ মানুষ শিক্ষার ছোঁয়া পেয়ে নিজেদের করণীয় বুঝতে লাগলো ৷ অর্থনৈতিক, সামাজিকভাবে মানুষ স্বাবলম্বী হতে লাগলো ৷

এলাকায় শিক্ষা বিস্তারে তিনি বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করেন ৷ গরীব-মেধাবি ছাত্রদের সকল কিছুর দায়ভার নিজকাঁধে তুলে নেন ৷ ভরণপোষনের পাশাপাশি পড়াশুনার জন্য শিক্ষক রেখে পরিচর্যা করেন ৷ এভাবে এলাকার ছাত্রদের আর্দশ ও আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলেন তিনি ৷

আজগরা হাজি আলতাপ আলী হাইস্কুল এন্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাকালীন সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ আবদুল করিম বিএসসি বলেন, 'হাজী সাহেবের ব্যাপারে বলতে গেলে বলে শেষ করা যাবেনা ৷ তিনি শত শত ছাত্রের অভিভাবক হয়ে থাকা-খাওয়ার দায়িত্ব নিয়েছেন ৷ উনার প্রতিষ্ঠিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে হাজার হাজার শিক্ষার্থী পড়াশনা করে দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন কাজে নিয়োজিত রয়েছে ৷ হাজী সাহেব এই এলাকাকে অনেক কিছু দিয়েছে যা সবসময় আমরা স্মরণ করি' ।

আজগরা হাজী আলতাপ আলী হাইস্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ বাবু তপন চন্দ্র সাহা বলেন, 'তিনি একজন আলোকিত মানুষ ছিলেন ৷ আলোর মশাল জ্বালিয়েছিলেন বিধায় অত্র এলাকা আজ শিক্ষা-সংস্কৃতি, অর্থনীতিতে অনেকদুর এগিয়ে গেছে ৷ মহান মুক্তিযুদ্ধের অবদানের জন্য জাতি আজীবন কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবে ৷ আমি  উনার আত্মার শান্তি কামনা করি।'

একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি প্রত্যক্ষ ভুমিকা পালন করেন ৷ দক্ষিণ-কুমিল্লার অন্যতম মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ছিলেন তিনি ৷

দক্ষিণ-কুমিল্লার আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে তিনি প্রত্যক্ষ ভুমিকা পালন করেন ৷ তিনি কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার ৭ নং আজগরা ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিষ্ঠাকালীন চেয়ারম্যান ছিলেন ৷ প্রায় দীর্ঘ ২৭ বছর সততার সাথে এলাকার মানুষদের সেবা প্রদান করেছিলেন ৷ অদ্যবধি আজগরা ইউনিয়নে তাকে ইতিহাসের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান হিসেবে গণ্য করা হয়।

একজন শাসক হিসেবে তিনি যেমন ছিলেন  আদর্শবান  শাসক, একজন রাজনীতিবিদ হিসেবে তিনি ছিলেন সৎ রাজনীতিবিদ, একজন জনগনের প্রতিনিধি হিসেবে তিনি ছিলেন ন্যয়পরায়ন, একজন সামাজিক সংগঠক হিসেবে তিনি ছিলেন দক্ষ ও পরোপকারী ৷

মরহুম হাজী আলতাপ আলী সাহেবের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসুচী গ্রহণ করা হয়েছে এবং তাঁর আত্মার মাগফিরাত কামনায় এলাকায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয় ৷

বিআলো/ইসরাত