মানবতার কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ ছাত্রলীগের বিপ্লব খান

মানবতার কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ ছাত্রলীগের বিপ্লব খান

সুমন সরদার: করোনা ভাইরাস প্রভাবে যখন সবাই নিজের জীবন বাঁচাতে ঘর মুখো হয় তখন থেকেই বিভিন্ন এলাকায় অসহায় কর্মহীনদের পাশে মানবতার দেয়াল হয়ে দাঁড়ালেন ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের ছাত্র বৃওি বিষয়ক উপসম্পাদক ও কলাবাগান থানা ছাত্রলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব খান।

বিপ্লব খান জানান, দেশের যেকোন দূর্যোগে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ নিবেদিত প্রাণ। দেশে করোনা আক্রমণের শুরু থেকেই প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের সহযোগিতায় নিজেরাই জীবাণুনাশক হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করি এবং জনসাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করতে থাকি। প্রথমে আমরা ভেবেছিলাম যে এটা বোধহয় ১৫-২০ দিনের ভিতরে ঠিক হয়ে যাবে কিন্তু পরবর্তীতে যখন দেখলাম দিনদিন পরিস্থিতি আরো অবনতির দিকে যাচ্ছে সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষণা করল। তখন খেটে খাওয়া অসহায় দিনমজুর রিকশাচালক অর্থাৎ যারা দিন আনে দিন খায় তাদের কর্ম ব্যবস্থা একদম পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। তখনই আমরা তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ত্রাণ কার্যক্রম হাতে নেই এবং আমাদের সমর্থন অনুযায়ী তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করি আমি ব্যক্তিগত উদ্যোগে কলাবাগান ধানমন্ডি বিভিন্ন এলাকায় বস্তিতে ঘুরে ঘুরে তাদের ঘরে ঘরে খাবার এবং চাল-ডাল দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত জিনিসপত্র দেয়ার চেষ্টা করি।

এছাড়া হিজড়া সম্প্রদায় রয়েছেন তাদের কে দেখলাম কেউই সহযোগিতা করছে না তখন আমি নিজ উদ্যোগে ৫০ জন হিজরাদের মাঝে ত্রাণ উপহার দিয়ে তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করি ।

এছাড়া রমজান মাসে প্রতিদিনই অসহায় গরীব দিনমজুরদের ইফতারের ব্যবস্থা করার চেষ্টা করেছিলাম এবং তাদেরকে বিভিন্ন সময়ে ঈদে ঈদ উপহার হিসেবে সেমাই দুধ চিনি চাল ডাল তেল আলো ইত্যাদি বিতরণ করি। আসলে প্রচার বা প্রশংসা পাওয়া আমার লক্ষ্য নয়, মানুষের কল্যাণে নিজের অবস্থান থেকে কাজ করে যাওয়া আমার মূল লক্ষ্য।