মোহাম্মদপুরে কিশোর গ্যাংয়ের ৯ সদস্য আটক

মোহাম্মদপুরে কিশোর গ্যাংয়ের ৯ সদস্য আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক:একটি কিশোর গ্যাং গ্রুপের ৯ জনকে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-২। কিশোর গ্যাং গ্রুপটির নাম ‘ভাইব্বা ল কিং’। তারা মোহাম্মদপুর বেড়িবাধ এলাকা সংলগ্ন এলাকায় ছিনতাই, চুরি ও চাঁদাবাজি করে থাকে।


মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) বেল ১২টার দিকে র‌্যাবের মুখপাত্র খন্দকার আল মঈন এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান।


 তিনি বলেন, ‘গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এই চক্রটিকে গ্রেফতার করা হয়। তারা গত দুই বছর ধরে মোহাম্মদপুরের ঢাকা উদ্যান, চন্দ্রিমা উদ্যান, নবীনগর, চাঁদ উদ্যান ও নবোদয় হাউজিং এলাকায় ছিনতাই, চুরি ও চাঁদাবাজি করে আসছিল। এই গ্রুপে আরও সদস্য রয়েছে, তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা করা হচ্ছে।


কিশোর এই গ্যাং গ্রুপের নেতা শরীফ ওরফে মোহন (১৮)। অন্যরা হলো- রুমন (১৮), উদয় (১৯), নয়ন (১৮), শাকিল (১৯) ও জাহিদ (১৮)। এরা ছাড়াও তিন অপ্রাপ্ত বয়স্ক কিশোরকেও গ্রেফতার করা হয়েছে।


এই গ্রুপের সদস্যরা এক সময় ‘লেবেল হাই গ্যাং’ গ্রুপের সদস্য ছিল। ২০১৬-১৭ সালের দিকে তাদের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোন্দল হয়। এরপর সেখান থেকে বেরিয়ে শরীফের নেতৃত্বে তারা ‘ভাইব্বা ল কিং’ গ্রুপ তৈরি করে।


মোহাম্মদপুরের বেরিবাঁধ এলাকাটি ছিনতাইকারীদের হটস্পট ঘোষণা করেছে ডিএমপি। এখানে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাবও কাজ করে। খন্দকার আল মঈন বলেন, ‘ছিনতাইয়ের শিকার মানুষ অভিযোগ করতে চায় না। এজন্য আসামিদের গ্রেফতার করতে কিছুটা সমস্যা হয়। তবে আমাদের গোয়েন্দা নজরদারি রয়েছে। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা ওইসব এলাকার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে তাদের শনাক্ত করেছি। তারা ওইসব এলাকায় প্রায় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা আক্রমণ করে ভীতির পরিবেশ সৃষ্টি করে। এসব ফুটেজ আমরা সংগ্রহ করেছি।’


গ্রেফতার কিশোরদের বিরুদ্ধে থানায় কোনও অভিযোগ নেই। তবে ওই এলাকায় বসবাসকারী মানুষের অভিযোগ রয়েছে অনেক। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।


বিআলো/শিলি