রাসেলকে আরও পাঁচ লাখ টাকা দিল গ্রীনলাইন

রাসেলকে আরও পাঁচ লাখ টাকা দিল গ্রীনলাইন

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বাসচাপায় পা হারানো প্রাইভেটকার চালক রাসেল সরকারকে ক্ষতিপূরণের আরো পাঁচ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর করেছে গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষ।

সোমবার (২৯ জুলাই) বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চে এ টাকা হস্তান্তর করা হয়। চেক রাসেলের হাতে তুলে দেন বাস কোম্পানি গ্রিনলাইনের আইনজীবী পলাশ চন্দ্র রায়।

এ সময় আদালত ক্ষতিপূরণের বাকি ৪০ লাখ টাকা প্রতি মাসে পাঁচ লাখ করে কিস্তিতে পরিশোধের নির্দেশ দেন। মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ১৭ অক্টোবর দিন ধার্য করা হয়েছে।

গত বছরের ২৮ এপ্রিল রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে গ্রিনলাইন পরিবহনের একটি বাস চাপা দেয় প্রাইভেটকার চালক রাসেল সরকারকে। তাকে বাঁচাতে একটি পা কেটে ফেলেন চিকিৎসকরা।

এ ঘটনায় রাসেলের জন্য ক্ষতিপূরণ চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেন সংরক্ষিত আসনের তৎকালীন সদস্য আইনজীবী উম্মে কুলসুম স্মৃতি।


রিটের চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে গত ১২ মার্চ হাইকোর্ট দুই সপ্তাহের মধ্যে রাসেলকে ৫০ লাখ টাকা দিতে গ্রিনলাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। তার চিকিৎসার ব্যয় বহনের নির্দেশও দেয়া হয় পরিবহনটিকে।


এ সময় প্রথম দফায় পাঁচ লাখ টাকা শোধ করলেও হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে গ্রিনলাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষ আপিল বিভাগে আবেদন করে। পরে হাইকোর্টের আদেশ বহাল রাখেন আপিল বিভাগ।


গত ২৫ জুন রাসেল সরকারকে প্রতি মাসে পাঁচ লাখ টাকা করে কিস্তিতে অপরিশোধিত ৪৫ লাখ টাকা দিতে গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন হাইকোর্টের বেঞ্চ। পাশাপাশি প্রতি মাসের ৭ তারিখের মধ্যে রাসেলকে কিস্তির টাকা দেয়ার পর ১৫ তারিখের মধ্যে তা আদালতে প্রতিবেদন আকারে দাখিলের নির্দেশও দেয়া হয়।


তবে গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষ এ আদেশ পাওয়ার পরবর্তী (জুলাই) মাসে কোনো টাকা দেয়নি রাসেল সরকারকে। এ প্রেক্ষাপটে গ্রিনলাইনের আইনজীবী অজি উল্লাহ গত ১৬ জুলাই মামলা থেকে সরে দাঁড়ান।


২১ জুলাই আইনজীবী শাহ মঞ্জুরুল হক গ্রিনলাইন পরিবহনের পক্ষে ওকালতনামা দিয়ে আদালতে এক সপ্তাহের সময় চেয়ে আবেদন করেন। সেই সময় শেষ হওয়ার আগে সোমবার আদালতেই রাসেলের কিস্তির টাকার চেক হস্তান্তর করা হলো।