ল্যাপটপ কেনার আগে গুরুতবপূর্ণ ৯ বিষয়

ল্যাপটপ কেনার আগে গুরুতবপূর্ণ ৯ বিষয়

বিআলো ডেস্ক: আপনি কি ল্যাপটপ খুঁজছেন? ল্যাপটপ কেনার আগে কোন ল্যাপটপ কিনবেন তা নিয়ে চিন্তিত কিংবা কোন ল্যাপটপ কিনে সেরা দামের মধ্যে সকল প্রয়োজন মেটানো যায় তা ভাবছেন। একটি ভালো মানের ল্যাপটপ কেনার আগে কোন কোন বিষয় মাথায় রাখা জরুরি সে বিষয়ে আলোচনা করবো।

প্রসেসর-
ল্যাপটপ কেনার আগে আপনাকে যে বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবে তার মধ্যে অন্যতম হলো প্রসেসর। প্রসেসর নির্ধারণ করে একটা ল্যাপটপ কি ধরনের প্রেশার নিতে পারবে। ইন্টারনেট ব্রাউজিং ,ভিডিও দেখতে, মাইক্রোসফট ওয়ার্ড এক্সেল কাজ করতে ডুয়েল কোর প্রসেসর আপনার জন্য যথেষ্ট। কিন্তু আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন কিংবা পাব্জি, ফ্রি ফায়ার, কল অব ডিউটি, বেলরেন্ট এর মত গেইম খেলতে চাইলে আপনাকে আলো ভালো মানের প্রসেসর নিতে হবে।

ডিসপ্লে সাইজ-
ল্যাপটপ কেনার আগে ডিসপ্লের সাইজ একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যদি ল্যাপটপের নিয়মিত বহন করার প্রয়োজন হয় সেক্ষেত্রে ডিসপ্লের সাইজ একটু ছোট কেনা ভালো। আর বাসায় ব্যবহারের ক্ষেত্রে একটু বড় নেয়া ভাল। কি ধরনের কাজের জন্য নিবেন যে বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে।

র‍্যাম-
সাধারণত ল্যাপটপে ২ জিবি থেকে ১৬ জিবি র‍্যাম থাকে। বর্তমানে আরো বেশি চাইলে লাগানো যায়। আপনি যদি বাসায় নরমাল ব্যাবহারের জন্য ল্যাপটপ কেনেন সেক্ষেত্রে আপনাকে র‍্যাম কিছু কম নিলেও চলবে। কিন্তু আপনি যদি গেম খেলতে চান সেক্ষেত্রে ৮ জিবি অথবা আরো বেশি র‍্যাম নেয়াই ভালো।

স্টোরেজ-
ল্যাপটপ কেনার আগে যে বিষয়গুলো মাথায় রাখা জরুরি তার মধ্যে অন্যতম স্টোরেজ। ল্যাপটপের স্টোরেজ যত বেশি হবে ল্যাপটপে তত বেশি তথ্য রাখা যাবে। হার্ডিস্ক সাধারণত স্লো হয়ে যায়। সময়ের সাথে সাথে বর্তমানে তাই এসএসডি কেনার প্রবণতা অনেক বেড়েছে। হার্ডিস্কের থেকে এসএসডির দাম বেশি। সেক্ষেত্রে বাজেটের বিষয়টি মাথায় রেখে হার্ডিস্ক এসএসডি নেয়ার বিষয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

ব্যাটারি-
ল্যাপটপ কেনার আগে ল্যাপটপের ব্যাটারি ব্যাকআপের বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে। ল্যাপটপের দাম অনুসারে ৪ ঘন্টা থেকে ৮ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাটারি ব্যাকআপ হয়ে থাকে। WH এককে ল্যাপটপের ব্যাটারি ক্যাপাসিটি দেয়া থাকে। WH যত বেশি হবে ল্যাপটপ চার্জ ব্যাকআপ তত বেশি হবে। তাই ল্যাপটপ কেনার আগে ব্যাটারি ব্যাকআপ কত ঘন্টা প্রয়োজন তা মাথায় ল্যাপটপ কিনতে হবে।

গ্রাফিক্স-
সাধারণত ব্যবহারের জন্য ল্যাপটপের সাথে সমন্বিত যে গ্রাফিক্স থাকে তাই যথেষ্ট। কিন্তু আপনি যদি গেম খেলেন অথবা গ্রাফিক্সের ভাল কাজ করেন তাহলে সেক্ষত্রে আপনাকে NVIDIA GeForce বা AMD Radeon গ্রাফিক্স কার্ডেরর ল্যাপটপ গুরুত্বপূর্ণ। এ গ্রাফিক্সগুলো অনেক ভালো কাজ করার ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখে।

সংযোগ-
ল্যাপটপে বিভিন্ন ধরনের পোর্ট থাকে। যেমন HDMI, USB, DP, SD সহ নানা ধরনের পোর্ট থাকে। ল্যাপটপ কেনার আগে আপনার কাঙ্ক্ষিত কোন পোর্ট প্রয়োজন তা দেখে নিতে হবে ল্যাপটপে আছে কিনা।

রিভিউ-
ল্যাপটপ কেনার আগে আপনাকে রিভিউর বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখতে হবে। কারণ রিভিউর মধ্যে দিয়ে আপনি নিশ্চিত হতে পারবেন ল্যাপটপের পারফরম্যান্স সম্পর্কে। তাই রিভিউ দেখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ল্যাপটপ শপ-
ল্যাপটপ বিক্রি করে বাংলাদেশের এমন অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে লক্ষ্যে করা যায় তাদের বিক্রয়োত্তর সেবা ভালো হয় না। অথবা আন-অফিসিয়াল প্রোডাক্ট দিয়ে থাকে। এ সকল সমস্যা এড়াতে টেকল্যান্ডবিডি হতে পারে আপনার জন্য নির্ভরযোগ্য ঠিকানা। যেখানে এইচপি, আসুস, এসার সহ নানা ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ পাওয়া যায়।

বিআলো/শিলি