১০০ শিশুর সঙ্গে গান গাইবে রুনা লায়লা

১০০ শিশুর সঙ্গে গান গাইবে রুনা লায়লা

বিনোদন ডেস্ক: কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী রুনা লায়লার সঙ্গে ‘বাংলাদেশ’ শিরোনামের একটি গানের সঙ্গে কণ্ঠ মেলাবে ১০০ শিশু। ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে পরদিন ২৭ মার্চ বাংলাদেশ শিশু একাডেমি মিলনায়তনে আয়োজন করা হয়েছে বিশেষ অনুষ্ঠান। 

শিশুদের নিয়ে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী সিমিন হোসেন রিমি। সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হওয়া এই অনুষ্ঠানে শিশুদের নিয়ে ‘বাংলাদেশ’ শিরোনামে একটি গান গাইবেন উপমহাদেশের নন্দিত সংগীতশিল্পী রুনা লায়লা। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী সিমিন হোসেন রিমি।

শনিবার (২৩ মার্চ) রাজধানীর বনশ্রীতে সুরকার ও সংগীত পরিচালক ফোয়াদ নাসের বাবুর স্টুডিও ‘পাশের ঘর’-এ গানটির রেকর্ডিং সম্পন্ন হয়েছে। এটি লিখেছেন ছড়াকার, শিশুসাহিত্যিক ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমির মহাপরিচালক আনজীর লিটন। সুর-সংগীত করেছেন আশরাফ বাবু।

রেকর্ডিং শেষে রুনা লায়লা বলেন, আনজীর লিটনের লেখা ও আশরাফ বাবুর সুর করা ‘বাংলাদেশ’ গানটির কথা ও সুর দুটিই আমার ভালো লেগেছে। এটা একটু ভিন্ন রকম গান হয়েছে। এ ধরনের দেশাত্মবোধক গান এর আগে আমার গাওয়া হয়নি। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ১০০ শিশুকে নিয়ে গানটি গাইব। এটাও আমার জন্য অনেক আনন্দের। 

তিনি আরও বলেন, আমি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি বাংলাদেশ শিশু একাডেমিকে। শিশুরা আমাদের ভবিষ্যৎ। আমি সব সময় শিশুদের অনুপ্রেরণা দিতে চাই, যেন তারা বড় হয়ে যে যা হতে চায়, তা-ই হতে পারে। যদি কেউ বড় হয়ে সংগীতশিল্পী হতে চায়। তাদের বলব, ওস্তাদের কাছে ভালোভাবে গান শিখতে হবে। নিয়মিত গানের চর্চা করতে হবে।

আনজীর লিটন বলেন, সংগীতশিল্পী রুনা লায়লা উপমহাদেশের গর্ব। তিনি আমাদের শিশুদের জন্য, শিশুদের নিয়ে গান করেছেন। এটা শিশুদের কাছে বড় অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে। আমার জন্যও বড় প্রাপ্তি। তিনি আমার লেখা গান গেয়েছেন। আমি রুনা আপার প্রতি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ।

বিআলো/শিলি